সাঈদীর মরদেহ পিরোজপুরে নেওয়া হচ্ছে – দৈনিক গণঅধিকার

সাঈদীর মরদেহ পিরোজপুরে নেওয়া হচ্ছে

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ১৫ আগস্ট, ২০২৩ | ৮:২৪
একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধে আমৃত্যু কারাদণ্ডপ্রাপ্ত মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মরদেহ তার জন্মস্থান পিরোজপুর নেওয়া হচ্ছে। সোমবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাঈদীর মরদেহ পিরোজপুরে নেওয়া হচ্ছে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। পরে তার মরদেহ নেওয়ার জন্য অ্যাম্বুলেন্সটি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করে। তবে নেতাকর্মী ও উপস্থিত জনতার সরব উপস্থিতি আর বাধায় পৌনে এক ঘণ্টা চেষ্টা করেও হাসপাতাল থেকে ২০০ গজ এগিয়ে যেতে পারেনি কফিনবাহী অ্যাম্বুলেন্সটি। পরে পুলিশ জোরপূর্বক লাশবাহী অ্যামুলেন্সটি বের করতে চাইলে রাত ৪টার দিকে ধস্তাধস্তির ঘটনাও ঘটে। এর আগে উপস্থিত জামায়াতের নেতারা বলেছিলেন, প্রশাসন অনুমতি দিলে আজ (বুধবার) বায়তুল মোকাররমে নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। অনুমতি না মিললে পিরোজপুরে সাঈদীর মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে তার নামাজে জানাজা হবে। যেহেতু বিএসএমএমইউতে তার (সাঈদী) অসংখ্য ভক্ত উপস্থিত হয়েছেন সেহেতু এখানেও নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হতে পারে। প্রসঙ্গত, সোমবার রাত ৮টা ৪০ মিনিটে রাজধানীর (বিএসএমএমইউ)-তে কারা হেফাজতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মৃত্যু হয়। রোববার (১৩ আগস্ট) বিকালে ৫টার সময় তিনি গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের ভেতরে বুকের ব্যথায় অসুস্থ হয়ে পড়েন। সেখান থেকে রাতেই তাকে জরুরি অবস্থায় ঢাকায় হস্তান্তর করা হয়। কাশিমপুর কারা কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরেই একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে আমৃত্যু দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত জামায়াতের নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর পার্ট-১ বন্দি ছিলেন। সেখানে থাকা অবস্থায় রোববার বিকাল ৫টার দিকে তিনি বুকের ব্যথায় অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে কারা কর্তৃপক্ষ তাকে কারাগারের অ্যাম্বুলেন্স দিয়ে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে পাঠানো হয়।

দৈনিক গণঅধিকার সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
সাঁথিয়ায় বিয়ে বাড়িতে এসে নদীতে ডুবে কলেজছাত্র নিহত থানার সামনেই মহাসড়কে অবাধে চলছে অবৈধ যান নিখোঁজের ৭ ঘণ্টা পর কুমারখালির পদ্মা নদী থেকে তরুণের মরদেহ উদ্ধার রেলওয়েতে বিশাল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি মুখোমুখি অবস্থানে ইসরায়েল ও হিজবুল্লাহ: বৃহত্তর সংঘর্ষের আশঙ্কা বাড়ছে লিচু খাওয়ার যত উপকারিতা রাসেলস ভাইপারের কামড় খেয়ে সাপ নিয়ে হাসপাতালে কৃষক যশোরে চাঁদা না পেয়ে ৭ লাখ টাকার জাল নষ্ট করেছে সন্ত্রাসীরা আটলান্টার পিচ নিয়ে স্কালোনি-মার্তিনেজের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ‘অন্তত ১৭০ রান করা উচিত ছিল’ : শান্ত গোয়ালন্দে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, অর্থের বিনিময়ে ধামাচাপা দিতে দৌড়ঝাপ দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে দিল্লি গেলেন প্রধানমন্ত্রী কুষ্টিয়ার মিরপুরে এসএসসি ৯৯ ব্যাচের মিলনমেলা অনুষ্ঠিত হলের জানালার গ্রিল বিক্রি করতে গিয়ে ধরা চবি ছাত্রলীগের সাবেক নেতা মেসির রেকর্ডে কোপার শুরুতেই আর্জেন্টিনার জয় ইতালিকে হারিয়ে নক-আউটে স্পেন মুখোমুখি অবস্থানে সরকার ও সেনাবাহিনী, বিপদে ইসরায়েল হিটস্ট্রোক চিকিৎসায় বরফ পানির সিরামিক টাব! সুইস ব্যাংকে আর বাংলাদেশিদের আগ্রহ নেই পল্টনে এক অফিস থেকে ২ যুবকের মরদেহ উদ্ধার