বাচ্চার খাবার খেয়ে ফেলায় ১০ বছরের গৃহকর্মীকে হত্যা: পুলিশ – দৈনিক গণঅধিকার

বাচ্চার খাবার খেয়ে ফেলায় ১০ বছরের গৃহকর্মীকে হত্যা: পুলিশ

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ | ৫:৫৬
গৃহকর্ত্রী সাথীর বাচ্চার খাবার খেয়ে ফেলায় রাজধানীর কলাবাগানে শিশু গৃহকর্মী হেনাকে (১০) নির্যাতন করে হত্যা করা হয়। রোববার ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান ডিএমপির রমনা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার আশরাফ হোসেন। এর আগে গতকাল যশোর থেকে পলাতক আসামি সাথীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। আশরাফ হোসেন জানান, শিশুটিকে ডাল-ঘুটনি দিয়ে পিটিয়ে ও পা দিয়ে গলা চেপে নির্মমভাবে হত্যা করেন গৃহকর্ত্রী সাথী পারভীন। শিশুটির মৃত্যুর পর মোবাইল ফোন রেখে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ঘুরাফেরা করতে থাকে গৃহকর্ত্রী সাথী। পরে একসময় যশোরে চলে যায় সাথী। পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, গত ২৬ আগস্ট সকালে রাজধানীর কলাবাগানের একটি বাসার দরজা ভেঙে বিছানায় একটি কাজের মেয়ে লাশ দেখতে পায়। পরে লাশটি শনাক্ত করে জানা যায়- এটি একটি এতিম শিশু ও গৃহকর্মী মোছা. হেনা। সে মোছা. সাথী পারভীন ডলির বাসায় কাজ করতো। ২০১৯ সাল থেকে সাথী ওই বাসায় থাকেন। ২০২০ সালে হেনাকে নিয়ে এসে কাজের মেয়ে হিসেবে রাখা হয়। তার শরীরে অনেক নতুন ও পুরনো আঘাতের চিহ্ন, মুখে ফেনা, শরীর ফোলা দেখতে পায়। বাসার সিসি ফুটেজ থেকে আমরা আরও দেখতে পাই- এই শিশুটির গলায় পা দিয়ে গৃহকর্ত্রী হেনা তাকে নির্যাতন করছে। সাথী ঘটনার পরপর তার বাচ্চা নিয়ে বাসা থেকে বেরিয়েছে। বাসা থেকে আমরা তিনটি মোবাইল ফোন জব্দ করি, যা সাথী ব্যবহার করতো। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাতে এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান, দা-বটি দিয়ে শিশুটিকে নির্যাতন করে সাথী। কখনো লাঠি দিয়ে নির্যাতন করেছে। হেনার অপরাধ হলো- তার বাচ্চার জন্য রাখা খাবার খেয়ে ফেলতো। তার বাচ্চার খেলার সাথী হিসেবে একজন আরেকজনকে মারে এমন ছোটখাটো বিষয়ে এই হত্যাকারী তাকে নির্যাতন করে। এই নির্যাতনের ফলে বাচ্চাটি মৃত্যুবরণ করে। বাচ্চাটি বিছানায় মল ত্যাগ পর্যন্ত করে ফেলে। কলাবাগানের সেন্ট্রাল রোডের একটি বাসায় শিশু সন্তান এবং ১০ বছরের গৃহকর্মীকে নিয়ে বসবাস করতেন সাথী। গত তিন বছর ধরে শিশুটি ওই বাসায় কাজ করছিল। গত ২৫ আগস্ট শিশুটিকে নির্যাতন করা হয়। শিশুটি মারা যাওয়ার পর পালিয়ে যান সাথী।

দৈনিক গণঅধিকার সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
সাতক্ষীরায় স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন খুলনায় যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা আবেদ আলীর ছেলে সিয়ামকে উপজেলা ছাত্রলীগ থেকে অব্যাহতি সঠিকভাবে রোগ নির্ণয় না হওয়ায় দেশের অর্ধেক রোগী বিদেশে চলে যান : স্বাস্থ্যমন্ত্রী মাদারীপুরে দুই শিশুর রহস্যজনক মৃত্যু; আটক মা ২ শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যার অপরাধে মধুখালীতে ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে অপসারণ চন্দনা কমিউটার ট্রেনের স্টপেজ পেলো ফরিদপুর ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে লিফটের জন্য ব্যাপক ভোগান্তি পাবিপ্রবিতে কোটা সংস্কার দাবিতে শিক্ষার্থীদের মশাল মিছিল দৌলতদিয়ায় বিপৎসীমা ছুঁই ছুঁই করছে পদ্মার পানি বালিয়াকান্দিতে স্কুলের সামনে ইজিবাইকচাপায় ছাত্রী নিহত বেনাপোলে ১৮ টি সোনার বারসহ আটক ১ চুয়াডাঙ্গা সীমান্তে বিজিবির অভিযানে ৮ টি সোনার বারসহ যুবক আটক আবারও কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ ইবি শিক্ষার্থীদের ভারতে কারাভোগ শেষে দেশে ফিরেছে ১৩ কিশোর-কিশোরী বেনাপোল সীমান্তে ৯টি সোনার বারসহ আটক ১ যশোরে ‘জিন সাপ’ আতঙ্ক, হাসপাতালে ভর্তি ১০ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২১৬ কোটি টাকা বেশি রাজস্ব আয় বেনাপোল কাস্টমসে যশোরে সিজার অপারেশন করলেন নাক কান গলার চিকিৎসক কোটা সংস্কারের দাবিতে ফের কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ ইবি শিক্ষার্থীদের