মাছের দামে ‘৪০ বছরের রেকর্ড’ ভঙ্গ! – দৈনিক গণঅধিকার

মাছের দামে ‘৪০ বছরের রেকর্ড’ ভঙ্গ!

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২৯ জুলাই, ২০২৩ | ৯:১০ 72 ভিউ
পটুয়াখালীর দশমিনায় ৪০ বছরের ইতিহাস ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়েছে মাছের দাম। ১৯৮৩ সালে উপজেলা গঠনের পর শনিবার সর্বোচ্চ দামে মাছ বিক্রি হয়েছে। নদীবেষ্টিত উপকূলীয় এ উপজেলায় মাছের এমন চড়া দাম ভাবিয়ে তুলেছে নিম্ন আয় থেকে শুরু উচ্চ আয়ের ক্রেতাদেরও। বেশি চিন্তিত বরিশালে বিভাগের সবচেয়ে দরিদ্র এ উপজেলার দেড় লাখ প্রায় জনগোষ্ঠীর মধ্যে নিম্ন আয়ের ৬৫ হাজারের বেশি মানুষ। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের লাগামহীন দামের মাঝে মাছের চড়া দামে নাভিশ্বাস উঠছে তাদের। মাছ-ভাতের উপকূলের বাসিন্দাদের এখন নুন-ভাতে যেন দিন কাটাচ্ছেন। মাছ-ভাত যেন দিন দিন আকাশকুসুম চিন্তা। ক্রেতাদের অভিযোগ, বাজার তদারকি ও দালাল সিন্ডিকেটের কারণে পাইকারির চেয়ে দ্বিগুণ দামে বিক্রি হয় মাছ। জানা যায়, উপকূলীয় এ উপজেলায় সরকারি হিসেবে ১০ হাজারের বেশি জেলে রয়েছে। যা বাস্তবে আরও বেশি। স্থানীয় বাসিন্দাদের চাহিদা অনুযায়ী মাছ শিকার হলেও রেকর্ড দামে বিক্রি হচ্ছে মাছ। জেলেদের থেকে কম দামে মাছ কিনে দ্বিগুণ দামে বিক্রি করছেন খুচরা ব্যবসায়ী, দালাল-আড়তদাররা। শনিবার বাজার ঘুরে দেখা যায় ছোট চিংড়ি হাজার, একটু বড় সাইজের ইলিশ প্রায় দুই হাজার, পোয়া প্রায় হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এ ছাড়া বাজারে ৬শ থেকে ৭শ টাকার নিচে কোনো মাছ মেলে না। যে উপজেলা থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে মাছ রপ্তানি হয়, সেখানে মাছের এমন চড়া দামে হতাশ সবাই। কবির হোসেন নামে এক ক্রেতা বলেন, নদী ও জেলে নির্ভর এলাকার বাজারে মাছের এমন দাম তার ৪৭ বছর বয়সে কখনো দেখেননি। মাছের দাম বেশি ও সামর্থ্য না থাকায় মাসে দুই এক বার মাছ কেনেন তিনি। আগামী দিনে মাছ খেতে পারবেন কি না- এ নিয়ে দুশ্চিন্তার কথা জানান তিনি। তিনি বলেন, দশমিনা মাছ বাজারে দলাল সিন্ডিকেটের কারণে মাছের চড়া দাম এবং এই দালালরা দ্বিগুণ দামে মাছ বিক্রি করে লাখ লাখ টাকার মালিক হচ্ছেন। আফজাল নামে এক জেলে জানান, সরাসরি বাজারে মাছ বিক্রির সুযোগ না থাকা ও জেলেরা দাদনের খাতায় বন্দি থাকার কারণে মাছের দাম বেড়ে যাচ্ছে। অথচ জেলেরা তার ন্যায্য দাম পান না। উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মাহবুব আলম তালুকদার বলেন, জেলেরা দাদন নিলেও বা কেউ দিলেও সেটা স্বীকার করেন না। মাছের দাম বেশি হলে ধরে খাওয়া ছাড়া উপায় কি! সিন্ডিকেটের বিষয়টি প্রশাসনের দেখা উচিত বা তারা দেখবে।

দৈনিক গণঅধিকার সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
আওয়ামী লীগের সমাবেশ শুরু, স্লোগান কম দেওয়ার আহ্বান নিউমার্কেট সায়েন্সল্যাব চাঁদাবাজদের স্বর্গরাজ্য ‘ঠেকায়ে কারও কাছে কিছু নেইনি, কাউরে উপকার করে যদি…’: এসআই ওবায়েদুর রহমান বীর বাঙালি মুক্তির শপথে অনড় উৎস চিহ্নিত, প্রতিকারে নেই কার্যকর উদ্যোগ চট্টগ্রামে নির্দেশনা মানছেন না ব্যবসায়ী-আড়তদাররা গাজায় ২,০০০ টন খাদ্য পাঠাল যুক্তরাজ্য ইউক্রেনের পতন ঠেকাবে যুক্তরাষ্ট্র ক্যানসারের টিউমার অপসারণে বিশ্ব রেকর্ড রুশ চিকিৎসকদের পুলিশ না চাইলে ফুটপাতে চাঁদাবাজি বন্ধ হবে না চীন পরিচালিত পাকিস্তানের সমুদ্র বন্দরে হামলা, নিহত ৮ দেশের জনগণ ত্রিশঙ্কু অবস্থায় রয়েছে: মির্জা আব্বাস সরকারি চাকরিতে ঢুকলেই পেনশন স্কিম বাধ্যতামূলক এবার সাকিবকে একহাত নিলেন রুমিন ফারহানা ‘দেশের মানুষ খেতে পায় না, আ.লীগ নেতারা বিদেশে সম্পদ গড়ে’ প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কাছে বিএনপি-জামায়াত পরাজিত হয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ১৮শ বছরের পুরোনো রোমান মূর্তি ঈদে যেসব ব্যাংকে নতুন নোট মিলবে ৩১ মার্চ থেকে প্রথম দিনেই এক্সপ্রেসওয়ের এফডিসি এক্সিট র‌্যাম্পে তীব্র যানজট জুনের শেষ সপ্তাহে হতে পারে এইচএসসি পরীক্ষা