সর্বজনীন পেনশন: নাবালক নমিনির ক্ষেত্রে প্রতিনিধি নিয়োগ করা যাবে – দৈনিক গণঅধিকার

সর্বজনীন পেনশন: নাবালক নমিনির ক্ষেত্রে প্রতিনিধি নিয়োগ করা যাবে

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২৫ আগস্ট, ২০২৩ | ৮:২৭
পেনশনভোগীর আগে সব নমিনি মারা গেলে সে ক্ষেত্রে পুনরায় নমিনি মনোনয়ন করতে পারবেন সর্বজনীন পেনশন স্কিমের সুবিধাভোগীরা। স্কিম চালুর প্রথমে এক বা একাধিক নমিনি মনোনয়ন করা যাবে। প্রয়োজনে স্কিমের মেয়াদের মধ্যেও নমিনি বাতিল করে পুনরায় নতুন নমিনি যুক্ত করা যাবে। পেনশনভোগীর মৃত্যুর পর জমাকৃত অর্থের বিপরীতে সুবিধা গ্রহণ বা উত্তোলন করতে পারবেন নমিনি। এমন বিধান সর্বজনীন পেনশন স্কিম সুবিধায় রাখা হয়েছে। ১৭ আগস্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সর্বজনীন পেনশন স্কিম চালু করেন। এরপর সাধারণ মানুষের মধ্যে নমিনি নিয়ে নানা ধরনের প্রশ্ন ওঠে। সূত্র জানায়, নমিনি নাবালক হলে পেনশনভোগীর মৃত্যুর পর তার প্রাপ্য অর্থ উত্তোলন বা গ্রহণের ক্ষেত্রে পেনশনভোগী জীবিত অবস্থায় অন্য যে কোনো ব্যক্তিকে প্রতিনিধি হিসাবে মনোনয়ন দিয়ে যেতে পারবেন। আরও পড়ুন: সর্বজনীন পেনশনের জন্য আবেদন করবেন যেভাবে এক্ষেত্রে নমিনী সাবালক না হওয়া পর্যন্ত পেনশনভোগীর নিয়োগ ব্যক্তি তার প্রতিনিধি হিসাবে কাজ করবেন। তবে এ ধরনের প্রতিনিধি নিয়োগ করা না হলে নাবালকের আইনসম্মত অভিভাবক এ স্কিমের আওতায় পাওনা অর্থ প্রাপ্য হবেন। এছাড়া একাধিক নমিনীর ক্ষেত্রে একজন মারা গেলে সেখানে নতুন নমিনী দেওয়া যাবে। যদি নতুন নমিনী না দেওয়া হয় সেক্ষেত্রে জীবিত নমিনী সব ধরনের সুবিধা পাবেন। এছাড়া পেনশন স্কিমে চাঁদা পরিশোধ করে পেনশন পাওয়ার যোগ্যতা অর্জনের পর মারা গেলে সেক্ষেত্রে সুবিধাভোগীর নমিনী বা নমিনীগণ এবং নমিনী না থাকলে উত্তরাধিকারীকে পেনশন দেওয়া হবে। সুবিধাভোগী ৭৫ বছরের আগেই মারা গেলে বা নিখোঁজ হলে নমিনী বা নমিনীগণ ৭৫ বছর পর্যন্ত পেনশন সুবিধা পাবেন। আর যদি পেনশন সুবিধা পাওয়ার আগেই মারা যান সেক্ষেত্রে নমিনী মুনাফাসহ জমাকৃত অর্থ ফেরত পাবেন।

দৈনিক গণঅধিকার সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
সাতক্ষীরায় স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন খুলনায় যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা আবেদ আলীর ছেলে সিয়ামকে উপজেলা ছাত্রলীগ থেকে অব্যাহতি সঠিকভাবে রোগ নির্ণয় না হওয়ায় দেশের অর্ধেক রোগী বিদেশে চলে যান : স্বাস্থ্যমন্ত্রী মাদারীপুরে দুই শিশুর রহস্যজনক মৃত্যু; আটক মা ২ শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যার অপরাধে মধুখালীতে ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে অপসারণ চন্দনা কমিউটার ট্রেনের স্টপেজ পেলো ফরিদপুর ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে লিফটের জন্য ব্যাপক ভোগান্তি পাবিপ্রবিতে কোটা সংস্কার দাবিতে শিক্ষার্থীদের মশাল মিছিল দৌলতদিয়ায় বিপৎসীমা ছুঁই ছুঁই করছে পদ্মার পানি বালিয়াকান্দিতে স্কুলের সামনে ইজিবাইকচাপায় ছাত্রী নিহত বেনাপোলে ১৮ টি সোনার বারসহ আটক ১ চুয়াডাঙ্গা সীমান্তে বিজিবির অভিযানে ৮ টি সোনার বারসহ যুবক আটক আবারও কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ ইবি শিক্ষার্থীদের ভারতে কারাভোগ শেষে দেশে ফিরেছে ১৩ কিশোর-কিশোরী বেনাপোল সীমান্তে ৯টি সোনার বারসহ আটক ১ যশোরে ‘জিন সাপ’ আতঙ্ক, হাসপাতালে ভর্তি ১০ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২১৬ কোটি টাকা বেশি রাজস্ব আয় বেনাপোল কাস্টমসে যশোরে সিজার অপারেশন করলেন নাক কান গলার চিকিৎসক কোটা সংস্কারের দাবিতে ফের কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ ইবি শিক্ষার্থীদের