২১ দিন পর মাঠ ছেড়ে ক্লাসে ফিরছেন শিক্ষকরা – দৈনিক গণঅধিকার

২১ দিন পর মাঠ ছেড়ে ক্লাসে ফিরছেন শিক্ষকরা

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২ আগস্ট, ২০২৩ | ৫:১৩
বেসরকারি মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবি নিয়ে জুলাইয়ে আন্দোলনে নেমেছিলেন শিক্ষকরা। টানা ২০ দিন ধরে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার পর শুরু করেন অনশন। অবশেষে ২১তম দিনে আন্দোলনের মাঠ ছেড়ে ক্লাসে ফিরছেন শিক্ষকরা। দাবি পূরণের ‘আশ্বাস পেয়ে’ মঙ্গলবার তারা অনশন স্থগিত করেছেন। আগামীকাল (২ আগস্ট) থেকে তারা ক্লাসে ফেরার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। মঙ্গলবার রাতে বাংলাদেশ টিচার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিটিএ) সাধারণ সম্পাদক শেখ কাওছার আহমেদ এ তথ্য জানিয়েছেন। এর আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা কবির বিন আনোয়ারের আমন্ত্রণে আওয়ামী লীগের ধানমন্ডির কার্যালয়ে যান শিক্ষক নেতারা। সেখানে রাত ৮টার দিকে কবির বিন আনোয়ার ও শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীসহ আওয়ামী লীগের শিক্ষাবিষয়ক উপকমিটির নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন তারা। বৈঠক শেষে বিটিএ’র সাধারণ সম্পাদক শেখ কাওছার আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের মূল দাবি ছিল সরকারি-বেসরকারি স্কুলের মধ্যে যে বৈষম্য রয়েছে সেটি দূর করতে হবে। আজকের (মঙ্গলবার) বৈঠকে সরকারি-বেসরকারি স্কুলের বৈষম্য দূর করার বিষয়ে সবাই একমত পোষণ করেছেন। জাতীয়করণের দাবির বিষয়ে সরকার যে দুটি কমিটি করেছে, সেখানে শিক্ষক প্রতিনিধিদের রাখা হবে। এটি আমাদের জন্য সুখবর। কমিটিতে শিক্ষক প্রতিনিধি থাকা মানে জাতীয়করণের কাজ এগিয়ে যাওয়া। বেসরকারি মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবিতে গত ১১ জুলাই সারা দেশ থেকে বেসরকারি মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ঢাকায় এসে আন্দোলনে যোগ দেন। আন্দোলনের ২০তম দিনে (৩১ জুলাই) তারা আমরণ অনশন করার ঘোষণা দেন। ১ আগস্ট শোকের মাসের শুরুর দিন থেকে কাফনের কাপড় পরে আমরণ অনশন শুরু করেন শিক্ষকরা। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এ কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ারও ঘোষণা দেন তারা। পরে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা ও শিক্ষা উপমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে দাবি পূরণের ‘আশ্বাস’ পেয়ে শিক্ষকরা আন্দোলন স্থগিত করে ক্লাসের ফেরার ঘোষণা দেন।

দৈনিক গণঅধিকার সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
দৌলতপুর থানার ওসি রফিকুল ইসলামকে প্রত্যাহার কুষ্টিয়ায় ডিবি পুলিশের অভিযানে ১০০ পিচ ট্যাপেন্টাডল ট্যাবলেটসহ আটক ১ কুমারখালিতে দেবরের গোপনাঙ্গ ছেঁড়ার চেষ্টা বারখাদায় মসজিদের বালিতে পানি দিতে গিয়ে বৈদ্যুতিক শকে যুবক নিহত সাবেক দুই কর্মকর্তার দুর্নীতির দায় এড়ানোর সুযোগ সরকারের নেই: দুদু ৪ বছর সাজা শেষে ভারতে ফিরলেন শেভরন টোকেন চৌধুরীকে ফুলের মালা পরালেন ওসি সোনারগাঁওয়ে গৃহবধু হত্যার অভিযোগে স্বামীসহ আটক ২ এমপি আনার অপহরণ মামলায় ৩ আসামির ৮ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর ‘অপরাধীকে আমরা অপরাধী হিসেবে দেখি, অপরাধী শাস্তি পাবে’ ডুবুরি নামানো হয়েছে বাগজোলা খালে, বশিরহাট আদালতে সিয়ামকে হাজির নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে সুস্পষ্ট লঘুচাপ, সাগরে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত গাজাজুড়ে আবারও ভয়াবহ হামলায় অন্তত ৫০ জন নিহত কাউন্সিলরকে জুতাপেটা করা ঢাকা দক্ষিণের আলোচিত নারী কাউন্সিলর চামেলী বরখাস্ত ‘দক্ষতায় সমস্যা নেই, সমস্যা মানসিকতায়’: যুক্তরাষ্ট্রের সাথে সিরিজ হারের পর শান্ত অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার কেন ভারতের কোচ হতে চান না ? ঝিনাইদহে প্রবাসীর স্ত্রীকে গলাকেটে হত্যা, আটক ২ জনতার ঢলে রাইসির চির বিদায় রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় খারকিভে ৭ জন নিহত কাজী নজরুলের ‘মৃত্যুক্ষুধা’ ও ‘কুহেলিকা’ প্রসঙ্গে